মঙ্গল. অক্টো ২২, ২০১৯

আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে এবারও জিততে পারলো না বাংলাদেশ

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আফগানিস্তানের বিরুদ্ধে রেকর্ডের খেরোখাতা একটু সমৃদ্ধ করতে জয়ের কোনো বিকল্প ছিলো না বাংলাদেশের। কিন্তু নাহ, এবারও পারলো না সাকিব আল হাসানরা। ত্রিদেশীয় সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে আফগানদের কাছে ২৫ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। মিরপুরে টস জিতে ব্যাটিং করে ১৬৪ রান করে আফগানিস্তান। জবাবে ১৩৯ রানেই গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ। ফলে আফগানিস্তানের কাছে টানা চারটি ম্যাচে হারলো বাংলাদেশ।

আজ আফগানদের বিরুদ্ধে ওপেনিংয়ে নেমেছিলেন মুশফিকুর রহিম। কিন্তু কিছু করতে পারেননি। ইতিমধ্যে দলকে বিপদে ফেলে সাজঘরে ফিরে গেছেন লিটন দাস ও মুশফিকুর রহিম। সাকিব ও সৌম্যও কিছু করতে পারেননি। তবে সাব্বির রহমানকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়েন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। ৫০ রানের জুটির পর রিয়াদ ফিরে যাওয়ার পর সাব্বিরও ফিরে যান। ফলে প্রথম ম্যাচের মতো আজও দল জেতানোর দায়িত্ব পড়ে তরুণ তুর্কি আফিফ ও মোসাদ্দেকের কাঁধে। কিন্তু প্রতিদিন তো জ্বলে ওঠা সম্ভব না।

এর আগে মিরপুরে ব্যাটিং করে মোহাম্মদ নবীর ৮৪ রানে ভর করে ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৬৪ রান তোলে আফগানিস্তান।  বাংলাদেশের হয়ে সাইফউদ্দীন ৪টি উইকেট ছাড়াও সাকিব দুটি উইকেট নেন। ৪ ওভারে ১টি মেডেনও নেন তিনি।

ব্যাটে নেমে ইনিংসের প্রথম বলেই সাইফউদ্দীনের ইনসুইঙ্গার বুঝতেই পারেননি রহমানুল্লাহ গুরবাজ। যখন বুঝলেন ততক্ষনে অফ স্ট্যাম্প পেছনে ছিটকে গিয়ে পড়ে আছে। কোন রান না করেই ফেরেন তিনি। এরপরের ওভারে সাকিব ফিরিয়েছেন আরেক ঝড় তোলা ওপেনার হজরতুল্লাহ জাজাইকে। গতকালই জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে এ দুজন ৫ ওভারে ৫০ রান নিয়েছিলেন। আজ দুজনই ফিরে গেছেন নামের প্রতি অবিচার করে।

ইনিংসের তৃতীয় ও নিজের দ্বিতীয় ওভারেই আরেকটি আফগান সেনা শিকার করেন ফেনীর ছেলে সাইফউদ্দীন। ১১ রানে ক্রিজে থাকা নাজিব তারাকাকে ফিরিয়েছেন সাব্বিরকে ক্যাচ বানিয়ে। সাইফউদ্দীন যখন জোড়া শিকার করেছেন তখন সাকিব কেনো বসে থাকবেন। নজিবুল্লাহ জাদরানকে ফিরিয়ে নিজের শিকারের সংখ্যা বাড়িয়েছেন সাকিব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *