শুক্র. জুলা ৩, ২০২০

কাশ্মীর ইস্যুতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেনকে পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ফোন

ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে বাংলাদেশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আব্দুল মোমেনকে টেলিফোন করেছিলেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি। মঙ্গলবার (৩ সেপ্টেম্বর) দু’দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মাঝে টেলিফোনে কথা হয় বলে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে জানানো হয়েছে।

টেলিফোনে শাহ মেহমুদ কোরেশি বলেন, জম্মু-কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে সরাসরি কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনে নেয়ার ভারতের সিদ্ধান্ত আন্তর্জাতিক আইন ও জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের রেজুলেশন লঙ্ঘন।

জম্মু-কাশ্মীরের তীব্র খাদ্য ও জীবন রক্ষাকারী ওষুধ সংকট, টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন করে দেয়া ও প্রায় মাসব্যাপী অচলাবস্থায় মানবাধিকার ও মানবিক পরিস্থিতির ক্রমান্বয়ে অবনতি হচ্ছে বলে জানান কোরেশি। এছাড়া জম্মু-কাশ্মীরে নেয়া ভারতীয় পদক্ষেপগুলো আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতার জন্য বড় ধরনের হুমকি বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

বাংলাদেশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আব্দুল মোমেন জম্মু-কাশ্মীরে ইস্যুটি আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। এছাড়া দুই পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভবিষ্যতে নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ অব্যাহত রাখতে সম্মত হন।

প্রসঙ্গত, জম্মু-কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা ও স্বায়ত্তশাসন দিয়ে ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের বিষয়টিকে ‘ভারতের অভ্যন্তরীণ ইস্যু’ বলে মনে করে বাংলাদেশ। গত ২১ আগস্ট পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে দেয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়ে বাংলাদেশের অবস্থান তুলে ধরা হয়

বলা হয়, বাংলাদেশ মনে করে, ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল দেশটির অভ্যন্তরীণ বিষয়। বাংলাদেশ নীতিগতভাবে সবসময়ই আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতায় বিশ্বাসী। আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা এ অঞ্চলের সব দেশের জন্য অগ্রাধিকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *